ঢাকা মঙ্গলবার
১৬ জুলাই ২০২৪
১৪ জুলাই ২০২৪

তাপমাত্রা ৩ দশমিক ৬ ডিগ্রি, দিল্লিতে রেড অ্যালার্ট


ডেস্ক রিপোর্ট
162

প্রকাশিত: ১৩ জানুয়ারী ২০২৪ | ০৫:০১:১৭ পিএম
তাপমাত্রা ৩ দশমিক ৬ ডিগ্রি, দিল্লিতে রেড অ্যালার্ট ফাইল-ফটো



ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লীতে তাপমাত্রা ৩ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসে নেমে গেছে। টানা দ্বিতীয় দিনের মতো দিল্লির তাপমাত্রা ৩ ডিগ্রিতে রয়েছে। 

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, শনিবার পারদ নেমে যাওয়ায় দিল্লি ও এর আশপাশের এলাকায় রেড অ্যালার্ট জারি করেছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। 
আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, দিল্লি, পাঞ্জাব, হরিয়ানা ও চণ্ডীগড়ে রেড অ্যালার্ট এবং রাজস্থানে ঠাণ্ডা ও কুয়াশার কারণে ইয়েলো অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে।

এর আগে গত রাতে দিল্লির সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৩ দশমিক ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়। এছাড়া দিল্লির লোদি রোডে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৩ দশমিক ৪, সফদরজংয়ে ৩ দশমিক ৬, রিজে ৩ দশমিক ৯ এবং পালামে ৫ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে।

জানুয়ারির মাঝামাঝি সময়ে গড়ে ৩ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা থাকে দিল্লিতে। এই তাপমাত্রাকে স্বাভাবিক বলে বিবেচনা করা হয়। গতকাল শনিবার রাতে নয়াদিল্লীতে ৩ দশমিক ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছিল। সেই হিসেবে শনিবার দিল্লির তাপমাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে নিচে নেমে গেছে।

ভারতের সংবাদমাধ্যম এএনআই এর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ব্যাপক কুয়াশার কারণে শুক্রবার রাত থেকে এ পর্যন্ত দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে দিল্লিগামী ১৮টি ট্রেন ১ থেকে ৬ ঘণ্টা দেরিতে এসে পৌঁছেছে। একই কারণে বেশ কিছু দিল্লির বিমানবন্দরেও বেশ কিছু ফ্লাইট নির্ধারিত সময়ের চেয়ে দেরিতে ছেড়েছে।

ভারতের আবহাওয়া অধিদপ্তরের (আইএমডি) তথ্য অনুযায়ী, দিল্লির প্রধান আবহাওয়া স্টেশন সফদরজং মানমন্দিরে ভোর সাড়ে ৫টায় দৃশ্যমানতা ২০০ মিটার ছিল। শনিবার সকালে নয়া দিল্লির বিভিন্ন অংশ ঘন কুয়াশায় ঢাকা পড়েছিল।

ভারতের কেন্দ্রীয় দূষণ নিয়ন্ত্রণ বোর্ডের (সিপিসিবি) তথ্য অনুযায়ী, স্থানীয় সময় সকাল ৯টায় দিল্লির বায়ুমান (একিউআই) ৩৬৫ ছিল। ৩০১ থেকে ৪০০ পর্যন্ত বায়ুমানকে ‘খুব খারাপ’ হিসেবে বিবেচনা করা হয়।

আইএমডি জানিয়েছে, উত্তর ভারতের ওপর দিয়ে বয়ে যাওয়া শৈত্য প্রবাহের জেরে দিল্লির তাপমাত্রা নেমে গেছে। আরও তিন দিন এই তাপমাত্রা থাকবে বলে জানিয়েছে ভারতের কেন্দ্রীয় আবহাওয়া দপ্তর।


আরও পড়ুন: