ঢাকা মঙ্গলবার
১৬ জুলাই ২০২৪
১৭ মার্চ ২০২৪

শীতে গোড়ালির ব্যথা হলে যা করতে হবে


ডেস্ক রিপোর্ট
199

প্রকাশিত: ১৮ জানুয়ারী ২০২৪ | ০৩:০১:৪৭ পিএম
শীতে গোড়ালির ব্যথা হলে যা করতে হবে ফাইল-ফটো



ইদানীং শীতে কারও ঘুম থেকে উঠার পর, বিছানা থেকে পা নামাতে গিয়ে হঠাৎ করেই অনেকেই টের পান- পায়ের গোড়ালিতে তীব্র ব্যথা অনুভূত হচ্ছে। আবার অনেকক্ষণ বসে থাকার পর উঠে দাঁড়ালেই পায়ের তলায় তীব্র ব্যথা হয়। কিছুক্ষণ হাঁটাহাঁটির পর সেই ব্যথা কমে আসে। আবার কারও আরও বেশি সময় লাগে। এ ক্ষেত্রে প্রথমে খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে হাঁটতে হয়, তারপর আস্তে আস্তে ব্যথা কমে আসে।


কারণ:
এমন ব্যথা সাধারণত দুটি কারণে হয়ে থাকে—

১. প্লান্টার ফাসাইটিস:
ব্যান্ডের মতো যে লিগামেন্ট দিয়ে পায়ের সামনের দিকের ছোট ছোট হাড় পেছনের দিকে গোড়ালির হাড়ের সঙ্গে সংযুক্ত থাকে, তাকে প্ল্যান্টার ফাসা বলে। পায়ের গোড়ালি ব্যথার অন্যতম প্রধান কারণ প্লান্টার ফাসাইটিস। শরীরের এই অংশে দীর্ঘমেয়াদী চাপের ফলে ফাসা বা ব্যান্ডে ইনজুরি হতে পারে। প্রাথমিক অবস্থায় ব্যথা কম থাকলেও পরবর্তীতে হাঁটাচলা অব্যাহত থাকে এই ইনজুরি গভীর হয়ে দীর্ঘমেয়াদি প্রদাহ ও ব্যথা অনুভূত হয় যাকে প্ল্যানটার ফাসাইটিস বলে। এক্ষেত্রে অনেকক্ষণ বিশ্রাম নেওয়ার পর বা সকালে ঘুম থেকে ওঠার পর ব্যথাটা বেশি টের পাওয়া যায়৷

২. ক্যালকেনিয়াম স্পার (গোড়ালির নিচের হাড়ের অস্বাভাবিক বৃদ্ধি):
সাধারণত গোড়ালির হাঁড়ে (ক্যালকেনিয়াম) ক্যালসিয়াম জমে তীক্ষ্ণ সূচালো দাঁতের মতো বাড়তি অংশ তৈরি হয় এই বাড়তি অংশ গোড়ালি নিচের মাংসপেশি, ফাসা, লিগামেন্ট ও টিস্যুতে হাঁটাচলা করার সময় খোঁচা দেয় যার ফলে গোড়ালিতে তীব্র ব্যথা অনুভূত হয়।

লক্ষণ:
⚫ জুতা ব্যবহার করলে, হাঁটলে, বিশেষ করে খালি পায়ে শক্ত জায়গায় হাঁটলে ব্যথা বাড়ে।
⚫সকালে ঘুম থেকে ওঠার পর মাটিতে পা দিলেই ব্যথা হয় এবং কিছুক্ষণ হাঁটাচলার পর ব্যথা কমে যায়।
⚫কিছু ব্যথা সারা দিন থাকে না, কিন্তু রাতে ঘুমানোর সময় বাড়ে।
⚫ব্যথার কারণে কখনো গোড়ালি ফুলে যায় ইত্যাদি।

চিকিৎসা:
✔ সব সময় নরম জুতা ব্যবহার করতে হবে। পেছনে খোলা থাকে এমন জুতা পড়বেন।
✔ হাঁটাচলার সময় নিচু হিল বা জুতা ব্যবহার করবেন।
✔ শক্ত স্থানে খুব বেশি সময় ধরে দাঁড়িয়ে থাকা যাবে না বা শক্ত স্থানে বেশি হাঁটাচলা করাও উচিত নয়।
✔ ভারি কোনো জিনিস বহন করা থেকে বিরত থাকতে হবে। যেমন- বেশি ওজনের বাজারের থলে, পানিভর্তি বালতি ইত্যাদি বহন করা যাবে না।
✔ সিঁড়ি দিয়ে ওঠা-নামা করার সময় মেরুদণ্ড সোজা রেখে হাতে সাপোর্ট দিয়ে ধীরে ধীরে উঠবেন ও নামবেন এবং যথাসম্ভব গোড়ালির ব্যবহার কম করবেন।
✔ ব্যথা থাকা অবস্থায় কোনো ধরনের ব্যায়াম করা যাবে না। 
✔ প্রদাহ কমাতে আপনার গোড়ালির পেছনে বরফ দেবেন। 
✔ চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে ব্যথানাশক ওষুধ খাবেন।


আরও পড়ুন: