ঢাকা মঙ্গলবার
১৬ জুলাই ২০২৪
১৭ মার্চ ২০২৪

পা দিয়ে তেলাপোকা পিষলেই বিপদ!


ডেস্ক রিপোর্ট
210

প্রকাশিত: ১৪ নভেম্বর ২০২২ | ০৫:১১:৫৭ পিএম
পা দিয়ে তেলাপোকা পিষলেই বিপদ! ফাইল-ফটো



পাঁচ কোটিরও বেশি বছর ধরে পৃথিবীর বুকে টিকে আছে ক্ষুদ্রকায় এই তেলাপোকা। অতি পরিচিত এই পোকা সামনে পড়লে নিশ্চয়ই আপনার পা নিশপিশ করে! ইচ্ছে করে, পিষে ফেলতে। কিন্তু না, এমনটা করলেই পড়বেন বিপদে। দ্য ডেইলি ডাইজেস্টের বরাতে এমএসএন ওয়েবসাইটে এ তথ্য মিলেছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে, পা দিয়ে তেলাপোকা পিষে মারার ফলে মানবদেহে ক্ষতিকর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার উদ্রেক হতে পারে। কারণ তেলাপোকা থেকে বেরিয়ে আসা অন্ত্রগুলো পরিবেশে ছড়িয়ে দেয় ব্যাক্টেরিয়া। যা নিঃশ্বাসের সঙ্গে মিশে গেলে হতে পারে হাঁপানি-শ্বাসকষ্ট কিংবা অ্যালার্জিও। তাই ভুলেও পিষে ফেলা তেলাপোকার আশপাশে নিঃশ্বাস নিতে যাবেন না।

এমনকি তেলাপোকা পা দিয়ে পিষে ফেললে মানুষের দেহে স্যালমোনেলা, স্ট্রেপটোকোচি এবং স্ট্যাফিলোকোচির মতো ব্যাক্টেরিয়ার সংক্রমণ হতে পারে। যা অন্ত্রে বাস করে ডায়রিয়া, কলেরা, টাইফয়েড এবং আমাশয়সহ নানা রোগ সৃষ্টি করতে পারে।

অনেকেই ভাবেন পা দিয়ে তেলাপোকা পিষে দিলেই বুঝি বিপদ থেকে বাঁচা গেল। তা কিন্তু মোটেই না। তাজা ক্ষত নিয়েও বেঁচে থাকতে পারে এটি- অনেকটা যেন কই মাছের প্রাণ। পিষ্ট হয়ে মৃতের ভান ধরে পড়ে থাকবে আর বিপদ কেটে গেলেই ক্ষতবিক্ষত শরীর নিয়ে লুকিয়ে পড়বে।

এ বিষয়ে পতঙ্গবিদ এবং কীট নিয়ন্ত্রণ বিশেষজ্ঞ রায়ান স্মিথ স্প্যানিশ পত্রিকা এবিসিকে জানান, তেলাপোকার অভিযোজনক্ষমতা ‘অনেক বেশি’। তাদের বেঁচে থাকার প্রবৃত্তিও অনেক প্রাণীর চেয়ে বেশি। খাদ্য ছাড়াও অনেক মাস বেঁচে থাকতে পারে এরা। জখম হয়েও ছড়াতে পারে ব্যাক্টেরিয়া।

তাহলে উপায়! উপায় তো আছেই। সবচেয়ে উত্তম সমাধান হতে পারে ফিউমিগেশন বা ধোঁয়া। বাড়ির যেখানেই তেলাপোকা দেখবেন, ফিউমিগেশন পদ্ধতি প্রয়োগ করতে পারেন। এতে করে তেলাপোকা কার্যকরীভাবে মারা যাবে। তবে সেক্ষেত্রে অবশ্যই ঘরের দরজা জানালা বন্ধ করে নিতে হবে।

সবকিছু বিবেচনা করে তেলাপোকা দেখামাত্রই আমাদের মাথায় সেটিকে পা দিয়ে পিষে মারার ধারণা আসলেও, তা মোটেই উচিত নয়। কে জানে, আপনার রান্নাঘরে থাকা তেলাপোকার কোনো ব্যাক্টেরিয়া হয়তো আপনার মস্তিষ্কে ঘুরে বেড়াচ্ছে।


আরও পড়ুন: