ঢাকা মঙ্গলবার
২৫ জুন ২০২৪
০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

আওয়ামী লীগ ভোটের অধিকার ফিরিয়ে দিয়েছে: শেখ হাসিনা


ডেস্ক রিপোর্ট
286

প্রকাশিত: ০১ জানুয়ারী ২০২৪ | ০৬:০১:৫০ পিএম
আওয়ামী লীগ ভোটের অধিকার ফিরিয়ে দিয়েছে: শেখ হাসিনা ফাইল-ফটো



আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আওয়ামী লীগ ভোটের অধিকার ফিরিয়ে দিয়েছে। ভোট ও ভাতের অধিকারের জন্য আমাদের নেতাকর্মীরা অত্যাচার সয়েছে, জেলে খেটেছে। এখন আওয়ামী লীগ সরকার নির্বাচন কমিশনকে স্বাধীন করে দিয়েছে।

সোমবার (০১ জানুয়ারি) বিকেলে রাজধানীর ধানমন্ডির কলাবাগান মাঠে ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ আওয়ামী লীগের আয়োজিত জনসভায় তিনি এই কথা বলেন। বক্তব্যের শুরুতেই শেখ হাসিনা বলেন, নতুন বছরে (২০২৪) পদার্পণ করলাম। সবাইকে ইংরেজি নববর্ষের আন্তরিক শুভেচ্ছা জানাচ্ছি।

বঙ্গবন্ধুর দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার চিত্র তুলে ধরে আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, ৭৫-এর পর যারা ক্ষমতায় এসেছিল। তারা ক্ষমতায় এসেছিল অস্ত্র হাতে নিয়ে। মানুষের ভাগ্য গড়েনি। এই দেশটাকে নিয়ে ছিনিমিনি খেলা হয়। যে জয় বাংলা স্লোগানে দেশের মানুষ তাজা রক্ত দিয়েছিল, সেটিও নিষিদ্ধ করেছিল। মুক্তিযুদ্ধের চেতনার সম্পূর্ণ জলাঞ্জলি দিয়ে দেয়।

শেখ হাসিনা বলেন, যেদিন বাংলাদেশে ফিরে আসি। আমার ফেলে রাখা আপনজনদের পাইনি। পেয়েছি, হাজার হাজার মানুষ। সেদিন ঘোষণা দিয়েছিলাম, এই বাংলাদেশের মানুষই আমার পরিবার। তাদের মধ্যেই আমি খুঁজে পাবো বাবা-মা, ভাই-বোনের স্নেহ। হ্যাঁ, এটা পেয়েছি। একটা প্রত্যয় ছিল, সবার মুখে খাদ্য তুলে দেবো। কেউ গৃহহীন ভূমিহীন থাকবে না। সবাইকে উন্নত জীবন দেবো। ক্ষমতায় এসে সেই কাজ শুরুও করেছিলাম। কিন্তু গ্যাস বিক্রির মুচলেকা দিইনি বলে ২০০১ সালে ক্ষমতায় আসতে পারিনি।

শেখ হাসিনা বলেন, আওয়ামী লীগ শান্তিপূর্ণভাবে ক্ষমতা হস্তান্তর করেছে। কারণ, আওয়ামী লীগ গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে। আওয়ামী লীগ জনগণের শক্তিতে বিশ্বাস করে। জিয়াউর রহমান যখন ‘হ্যাঁ-না’ ভোটের মাধ্যমে ভোট চুরি করেছিল, আওয়ামী লীগই সোচ্চার হয়েছে। জনগণের ভোটের অধিকার জনগণের কাছে ফিরিয়ে দিয়েছে আওয়ামী লীগই। ‘আমার ভোট আমি দেব, যাকে খুশি তাকে দেব’, এই স্লোগান আমাদেরই দেয়া।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, নির্বাচন কমিশন এখন আইনের মারফত গঠিত হয়েছে। এর আগে, ইসি আর্থিকভাবে প্রাইম মিনিস্টারের অফিসের ওপর ন্যস্ত ছিল। আমরা স্বাধীন করে দিয়েছি, আলাদা বাজেট করে দিয়েছি। ইসি যাতে নির্বাচন পরিচালনা স্বাধীনভাবে করতে পারে, সেই ব্যবস্থা আওয়ামী লীগ সরকারই করে দিয়েছে।

শেখ হাসিনা আরও বলেন, আমরা মানুষের হৃদয় জয় করে তাদের ভোট পাই, চুরির প্রয়োজন হয় না। তারা (জিয়া-এরশাদ) ভোট চুরি করে, এটা আমার কথা না। হাইকোর্টের রায় আছে- জিয়ার ক্ষমতা দখল অবৈধ, এরশাদের ক্ষমতা দখল অবৈধ।

এর আগে এদিন বিকেল ৩টা ১৭ মিনিটে জনসভার মঞ্চে উপস্থিত হন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ আওয়ামী লীগ আয়োজিত এই জনসভায় প্রধান অতিথি হিসেবে ভাষণ দেন প্রধানমন্ত্রী।

এসময় স্লোগান স্লোগানে শেখ হাসিনাকে স্বাগত জানান আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। বাংলাদেশের পতাকা হাতে স্লোগানের জবাব দেন প্রধানমন্ত্রী। পাশাপাশি দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের ও কলাবাগান ক্রীড়া চক্রের সাধারণ সম্পাদক আফজালুর রহমান পৃথকভাবে আওয়ামী লীগ সভাপতিকে ফুল দিয়ে স্বাগত জানান।

আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আপনার ভোট আপনি দেবেন, কেউ যেন ঠেকাতে না পারে। বিএনপির বিষয়ে সবসময় সজাগ থাকতে হবে। এরা মানুষের ক্ষতি করতে চায়। এরা মানুষকে ভোটদানে বিরত রাখতে চেষ্টা করছে।

দ্বাদশ জাতীয় নির্বাচন উপলক্ষে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ও উত্তর আওয়ামী লীগের যৌথ আয়োজনে এ জনসভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন শেখ হাসিনা। এর আগে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।


আরও পড়ুন:

বিষয়: